বড় খবর

বিতর্ক উপেক্ষা করে সিঁদুর খেলায় মাতলেন নুসরত

এদিন উত্তর কলকাতার একটি পুজো মণ্ডপে তিনি এলেন নববধূর সাজে, পাশে সাজা পাজামা-পাঞ্জাবিতে নিখিল জৈন। নায়িকার উপর থেকে চোখ সরছিল না কারও।

nusrat nikhil
বিয়ের পর দশমীর সিঁদুর খেললেন নুসরত। ফোটো- ইনস্টাগ্রাম
বিয়ের পর প্রথম দুর্গাপুজো, স্বভাবতই প্রথমবার নিখিলকে নিয়ে সিঁদুর খেলছেন অভিনেত্রী-সাংসদ নুসরত জাহান। এদিন উত্তর কলকাতার একটি পুজো মণ্ডপে তিনি এলেন নববধূর সাজে, পাশে সাজা পাজামা-পাঞ্জাবিতে নিখিল জৈন। কারও চোখ সরছিল না নায়িকা উপর থেকে। অন্যান্য টলিউড তারকাদের সঙ্গে সিঁদুর খেললেন নুসরত।

নুসরতের পুজোয় শামিল হওয়া নিয়ে অসন্তোষ তৈরি হয়েছে নানা মহলে। তাঁর বিরুদ্ধে তো ফতোয়া জারি করেছে কট্টরপন্থীরা। অষ্টমীর দিন মণ্ডপে পুষ্পাঞ্জলি দেওয়া নিয়েই বিতর্কের সূত্রপাত। যদিও বসিরহাটের সাংসদ বারবার বলে এসেছেন, তিনি সব ধর্মকে সম্মান করেন এবং পশ্চিমবঙ্গে বড় হয়ে ওঠার জন্য তিনি ঈদ ও দু‌র্গাপুজো সমানভাবেই পালন করেন।

Nusrat-Sindhur-Khela
মণ্ডপে সিঁদুর খেলার সময়ে নিখিল-নুসরত। ফোটো- টুইটার

আরও পড়ুন, কেন উত্তমকুমারের স্ত্রীর আদলে চট্টোপাধ্যায় বাড়ির লক্ষ্মী প্রতিমা তৈরি হয়?

অষ্টমীর সকালে তারা গিয়েছিলেন সুরুচী সংঘে। নিষ্ঠাভরে মাকে অঞ্জলি দিয়েছিলেন নব দম্পতি। সেখানেই শেষ নয়, শাড়ির আঁচল কোমরে গুঁজে ঢাক বাজিয়েছিলে নায়িকা। আর এই দৃশ্য দেখেই সাংসদ বিরাগ ভাজন হয়েছিলেন অনেকের। তবে এ প্রথমবার নয়, বিয়ের পর থেকেই তাঁকে নিয়ে বিতর্ক চলছে। কট্টরপন্থীদের রোষের মুখে পড়ছেন প্রতিবার।

আরও পড়ুন, পরের পুজোয় ‘দুর্গ রহস্য’ ভেদ করবেন পরমব্রত-রুদ্রনীল

এদিনও বিতর্কের জবাবে নুসরত বলেন, ”’বিতর্কে পাত্তা দিইনা। আমি ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান। মানবতাই একমাত্র ধর্ম হওয়া উচিত। এভাবে সিঁদুর খেলতে পারায় আমি খুশি।” বৃহস্পতিবার সিঁদুর খেলা শেষ করে তিনি হাজির হয়েছিলেন রেড রোড কার্নিভালে। শ্রীভূমি স্পোটিং ক্লাবের প্রতিমার আগে হেঁটে এলেন তিনি। তার সঙ্গে ছিলেন নিখিল ও গায়ক অভিজিৎ।

Get the latest Bengali news and Entertainment news here. You can also read all the Entertainment news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Ctress turned mp nusrat jahan at chalta bagan sindur khela

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com