scorecardresearch

বড় খবর

দুর্নিবার ছাড়া আর কেউই নেই, আজও প্রাক্তনের স্মৃতি আঁকড়ে মীনাক্ষী

প্রাক্তনকে ভুলতে পারছেন না মীনাক্ষী?

দুর্নিবার ছাড়া আর কেউই নেই, আজও প্রাক্তনের স্মৃতি আঁকড়ে মীনাক্ষী
আজও দুর্নিবারের স্মৃতিতে মজে মীনাক্ষী?

অন্য সম্পর্কে জড়িয়েছেন দুর্নিবার। স্ত্রী মীনাক্ষীর আনা অভিযোগেই যেন সিলমোহর পড়েছে কাল। অবশেষে প্রকাশ্যে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের পার্সোনাল ম্যানেজার মোহর অর্থাৎ ঐন্দ্রিলা সেন। তারপর থেকেই শোরগোল ইন্ডাস্ট্রি মহলে। তবে মীনাক্ষীর মনের অবস্থা আসলেই কী?

সম্পর্কে ইতি টানলেও মীনাক্ষী আজও স্মৃতির পাতায় তুলে রেখেছেন দুর্নিবারকে। প্রায় অনেকদিন হল, আলাদা রয়েছেন দুজনে। তারপরও সোশ্যাল মিডিয়ায় বহাল আছে দুজনের একসঙ্গে ছবি। কোনও ছবিই ইনস্টাগ্রাম থেকে মুছে ফেলেন নি তিনি। নানান মুহূর্ত আজও ফ্রেমবন্দি। পাহাড় থেকে রেস্টুরেন্ট – ভ্রমণের ছবি হোক কিংবা জীবনের শ্রেষ্ঠ দিন বিয়ের ছবি। সবকিছুই আজও রয়ে গেছে টাইমলাইন জুড়ে। এটুকু বোঝাই যাচ্ছে মন থেকে আজও সেইসব দিনের মুহূর্ত সরিয়ে দিতে পারেননি মীনাক্ষী।

[আরও পড়ুন: বানানে অষ্টরম্ভা! চরম ট্রোলড ‘গাঁটছড়া’, প্রোমো নিয়ে হুলুস্থূল কাণ্ড!]

একসঙ্গে অনেকটা সময় কাটিয়েছেন। সারেগামাপার মঞ্চ থেকে, সুখের সময় – জীবনের নানা মুহূর্ত একসঙ্গে ভাগ করে নিয়েছিলেন। যেখানেই যেতেন একসঙ্গে যেতেন। একেবারেই রীতিনীতি মেনে মেহেন্দি – গায়ে হলুদ, আইবুরোভাত কিছুই বাদ পড়েনি। সম্পর্কটা আজ শেষ হলেও স্মৃতিগুলো আগের মতই চাঙ্গা। মিনাক্ষীর সঙ্গেও প্রেমের বিয়ে, ভালবেসেই গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন দুজনে। তাহলেও টিকল না কেন – দর্শকদের মনে এখন একটাই প্রশ্ন।

আরও পড়ুন [ পরকীয়ার কথাই সত্যি! নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছেন দুর্নিবার ]

এদিকে, গতকাল মোহর-দুর্নিবারের সম্পর্ক প্রকাশ্যে আসতেই নানান মন্তব্যের ছড়াছড়ি। মীনাক্ষী জানিয়েছিলেন এই নিয়ে কথা বলতে একেবারেই পছন্দ করছেন না। দুজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের সম্পর্ক নিয়ে যে কাটাছেঁড়া চলছে সেটা যেন না হয়। তবে গতকাল ঐন্দ্রিলা সেন সাফ জানান, আজীবন দুর্নিবার শুধুই তার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Durnibar saha forget his wife but not meenakshi social media flooded with pictures