মৃণালিনী সারাভাইয়ের জন্মশতবর্ষে ডুডলের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানাল গুগল

ভারত সরকার মৃণালিনীকে ১৯৬৫ সালে পদ্মশ্রী এবং ১৯৯২ সালে পদ্মভূষণ দিয়ে সম্মানিত করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি সঙ্গীত নাটক আকাদেমীর ফেলোশিপও পান।

By : IE Bangla Web Desk | kolkata Published: May 11, 2018, 12:03:28 PM

প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী মৃণালিনী সারাভাইয়ের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে শুক্রবার গুগল শ্রদ্ধার্ঘ জানাল তাঁদের ডুডলের মাধ্যমে। ডুডলের এই ছবিটিতে তাঁর ট্রেডমার্ক ছাতা সমেত দর্পণ আকাদেমি অফ পারফর্মিং আর্টস অডিটোরিয়ামে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। পাশে বিভিন্ন নৃত্য বিভঙ্গে রয়েছেন তাঁর ছাত্রীরাও। উল্লেখ্য, এই আকাদেমী তিনিই প্রতিষ্ঠা করেন ১৯৪৯ সালে।

আরও পড়ুন :ফরাসি পরিচালক জর্জ মেলিস-কে ডুডলের মাধ্য়মে গুগলের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

এস স্বামিনাথন এবং এভি আম্মাকুট্টির মেয়ে সারাভাইয়ের জন্ম হয় ১৯১৮ সালের ১১ই মে। তাঁর বাবা ছিলেন  মাদ্রাজ হাই কোর্টের একজন প্রখ্যাত উকিল এবং মা একজন সমাজসেবী। ১৯৪২ সালে মৃণালিনীর বিয়ে হয় খ্যাতনামা মহাকাশ বিজ্ঞানী বিক্রম সারাভাইয়ের সঙ্গে।

সারাভাইয়ের নাচের হাতেখড়ি হয় বেশ কম বয়সেই। তিনি ভারত নাট্যম এবং কথাকলি- দুই ধরণের নৃত্যকলারই চর্চা করতেন। তাঁর দিদি লক্ষী সেহগল ভারতীয় সেনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এবং দাদা গোবিন্দ স্বামিনাথন ছিলেন মাদ্রাজ হাইকোর্টের এটর্নি জেনারেল।

আরও পড়ুন : দাদা সাহেব ফালকের ১৪৮ তম জন্মদিনে ডুডল বানিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন গুগলের

ভারত সরকার মৃণালিনীকে ১৯৬৫ সালে পদ্মশ্রী এবং ১৯৯২ সালে পদ্মভূষণ দিয়ে সম্মানিত করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি সঙ্গীত নাটক আকাদেমীর ফেলোশিপও পান। কেরল সরকারের নিশাগন্ধী পুরস্কারমের প্রথম প্রাপক হিসাবে ও তাঁর নামই পরিগণিত হয়। ২০১৬ সালের জানুয়ারী মাসে ৯৭ বছর বয়সে মৃণালিনী সারাভাই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।