scorecardresearch

বড় খবর

হোলির নাছোড়বান্দা রঙ তুলতে হিমশিম? জানুন ঘরোয়া উপায়

হাতে, মুখে, পায়ে ছোবড়া রগড়াতে রগড়াতে ছাল-চামড়ার দফা রফা। সঙ্গে বেশ কয়েক ঘণ্টার জ্বলুনি। তবু উঠল না রঙের তৈরি গোঁফের রেখা, নখের ভিতর বিচ্ছিরিভাবে আটকে থাকা রঙ?

হোলির নাছোড়বান্দা রঙ তুলতে হিমশিম? জানুন ঘরোয়া উপায়
রঙ মেখে ভুত হবেন এটাই তো দোলের মজা।

হোলির রঙ তুলতে কী পরিমাণ বেগ পেতে হয়েছিল গত বছর? মনে আছে? হাতে, মুখে, পায়ে ছোবড়া রগড়াতে রগড়াতে ছাল-চামড়ার দফা রফা। সঙ্গে বেশ কয়েক ঘণ্টার জ্বলুনি। তবু উঠল না রঙের তৈরি গোঁফের রেখা, নখের ভিতর বিচ্ছিরিভাবে আটকে থাকা রঙ, শেষমেষ কাটতে হল সেই সাধের নখ। কেউ বিষয়গুলি মজা করেই মেনে নেন, কেউ বা মনস্থির করেন আর নয়, এই শেষবার রঙ খেলা। এমন সিদ্ধান্ত নেবেন না। রঙ মেখে ভূত হবেন, এটাই তো দোলের মজা। এ বছর বরং রঙ খেলতে যাওয়ার আগে জেনে নিন রঙ তোলার সহজ ঘরোয়া উপায়।

* ছোটবেলা থেকে নিশ্চয়ই বাবা মায়ের কাছে শুনে এসেছেন নারকেল তেল মেখে রঙ খেললে পরে তুলতে সুবিধা হবে। হ্যাঁ, একদমই ঠিক। রঙ খেলার পরে ফেস প্যাক না লাগিয়ে বরং আগেই মেখে নিন নারকেল তেল। তবে যদি নারকেল তেল মাখতে ইচ্ছা না করে তাহলে অলিভ অয়েলও মেখে নিতে পারেন। পরে রঙ তুলতে সমস্যা হবে না।

* আপনার ত্বক কি ‘ড্রাই’? ত্বক শুকনো হলে রঙ খুব তাড়াতাড়ি শুকিয়ে ত্বকের গভীরে আটকে বসে। তখনই তা তুলতে গেলে রীতিমত হিমশিম খেতে হয়। রঙ খেলে এসে প্রথমে ফেস ওয়াশ দিয়ে প্রাথমিকভাবে ধুয়ে নিন। বেশি রগড়ানোর প্রয়োজন নেই। রঙ খেলতে যাওয়ার আগে দই বেসন আর মধু দিয়ে প্যাক বানিয়ে রেখে যান। ফিরে মুখ ধুয়ে প্যাক মেখে মিনিট কুড়ি অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে এলে, হালকা রগড়ে ধুয়ে ফেলুন।

আরও পড়ুন: ওজন কমাতে স্টার্টারের আগে করুন মিষ্টি মুখ

* যদি মনে করেন রঙ খেলে আপনার ত্বকের ক্ষতি হতে পারে, তাহলে গোটা দশ আমন্ড (কাঠবাদাম) বেটে তার সঙ্গে মধু ও লেবুর রস মেশান। প্রাথমিকভাবে মুখ ফেস ওয়াস দিয়ে ধুয়ে প্যাকটি মাখার পর শুকানো অবধি অপেক্ষা করুন। সম্পূর্ণ শুকিয়ে এলে ধুয়ে ফেলুন।

* আপনার ত্বক কি তৈলাক্ত? মুসুর ডাল ও কমলালেবুর খোসা বেটে প্যাক তৈরি করে নিন। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এটি বেশ উপকারী। একই পদ্ধতিতে প্যাকটি মুখে শুকিয়ে গেলে তুলে ফেলুন।

* রঙ খেলে এসে প্রথমে ফেস ওয়াশ দিয়ে প্রাথমিকভাবে ধুয়ে নিন। বেশি রগড়াতে যাবেন না। পাকা কলা, সঙ্গে মধু ও দুধ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ত্বকে মাখুন। একইভাবে শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। এতে চকচকে ও মসৃণ হবে আপনার ত্বক।

আরও পড়ুন: বয়স কুড়ি পেরোনোর আগেই ঠিক করে নিন ডায়েট

* সমপরিমাণ বেসন ও চালের গুঁড়ো নিয়ে তাতে হলুদ গুঁড়ো ও গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ত্বকে লাগান। তবে অবশ্য, এই প্যাক স্ক্রাবের ভুমিকা নেবে। মাখার পর খানিক শুকিয়ে গেলে রগড়াতে থাকুন। যদি সম্ভব হয় ইউটিউবে মাসাজ পদ্ধতি দেখে নিতে পারেন। শুকিয়ে এলে কাঁচা দুধ দিয়ে আবার স্ক্রাবিং করতে থাকুন। মিনিট দশেক করার পর ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হলুদ অ্যান্টিসেপটিকের কাজ করবে, সুতরাং ত্বকের কোনও সমস্যা হবে না।

* এসব যদি আপনার জন্য অতিরিক্ত মনে হয়, তাহলে নিশ্চিন্তে কিছু প্রস্তুতি না নিয়েই মনের আনন্দে রঙ খেলে ফেলুন। ফিরে প্রয়োজন মত ফেসওয়াশ দিয়ে যতটা সম্ভব রঙ তুলুন। তারপর বেশি করে বোরোলিন বা গ্লিসারিন মেখে থাকুন। ঘণ্টা খানেক পর তুলো দিয়ে সেই বোরোলিন ঘষে তুলে ফেলুন। দেখবেন তুলোর সঙ্গেই রঙ উঠে যাবে। এরকম দু-তিনবার করলেই সমস্ত রঙ উঠে যাবে।

রঙ খেলে আসার পর চুলের যত্ন নেবেন কেমন করে?

* রং খেলে এসে শ্যাম্পু ব্যবহার করার আগে, জল দিয়ে আগে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। চার টেবিল চামচ মেথি, জবা ফুল, নারকেল তেল ফুটিয়ে তেল তৈরি করুন। সেই তেলের সঙ্গে ডিমের কুসুম দিয়ে প্যাক তৈরি করে তা চুলে ভালো করে মাসাজ করুন। ৩০ মিনিট পর ভালো করে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। কন্ডিশনার হিসাবে মধু এবং জলপাই তেল মিশ্রণ করে চুলের ঘনত্ব অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারেন। মনে রাখবেন, রঙ খেলতে যাওয়ার আগে অবশ্যই চুলে তেল মেখে যাবেন, তাহলে রঙ তুলতে সমস্যা হবে না।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Lifestyle news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Easy and effective ways to remove holi colours without harming skin and hair