বড় খবর

একুশের মঞ্চে ইভিএম ছেড়ে ব্যালটে ফেরার ডাক মমতার

“আমরা ইভিএম চাই না, বদলে ব্যালট চাই, ব্যালট পেপার।আমরা রাজ্যের নির্বাচন কমিশনকে বলব, যাতে পঞ্চায়েত, পুরসভা এবং পুরনিগমের ভোট ব্যালট পেপারেই করা যায়”।

শহিদ দিবসের মঞ্চে মমতা। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ফোটো- শশী ঘোষ।

লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরই ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একুশের মঞ্চ থেকে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে ফের সন্দেহ প্রকাশ করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার একুশে জুলাইয়ের শহিদ দিবসের মঞ্চ থেকে আগামী পুরভোট এবং পঞ্চায়েত নির্বাচনে ব্যালট পেপার ফিরিয়ে আনার ডাক দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সভামঞ্চ থেকে মমতা বলেন, “আমরা ইভিএম চাই না, বদলে ব্যালট চাই, ব্যালট পেপার। রাজ্যে যত ভোট হবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন সেখানে ব্যালট পেপার দিয়ে ভোট সম্পন্ন করাবে। আমরা রাজ্যের নির্বাচন কমিশনকে বলবো যাতে পঞ্চায়েত, পুরসভা এবং পুরনিগমের ভোট ব্যালট পেপারেই করা যায়”।

আরও পড়ুন:  মমতাকে দেখতে এসে লোকে চিড়িয়াখানায় চলে যায়, একুশের সভা শেষে কটাক্ষ সুজনের

এমনকী, ইভিএমকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে নির্বাচন কমিশন দ্বারা পরিচালিত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল নিয়েও প্রশ্ন তোলেন মমতা। প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গে ৪২টি আসনের মধ্যে ১৮টি আসনে জেতে বিজেপি। বঙ্গে গেরুয়া শিবিরের এই উত্থান নিয়েও সরব হয়ে ইভিএমে কারচুপির অভিযোগও আনেন তিনি। তৃণমূল সুপ্রিমোর বক্তব্য, “বিজেপি যা ভবিষ্যদ্বাণী করেছিল, সেটাই মিলে গিয়েছে। এটা রহস্যজনক। বিজেপি নেতারা আগে থেকেই বলে দিয়েছিলেন যে এতোগুলো আসন তাঁরা পাবেন। এর কারণ আগে থেকেই ইভিএমে ওরা কারচুপি করে রেখেছিল। নির্বাচনে স্বচ্ছতা আনার জন্যই ইভিএমকে দূরে রেখে ব্যালট পেপারে ফিরে আসা উচিত আমাদে। তিনি আরও বলেন, “আমেরিকা, লন্ডন, জাপান, ফ্রান্স, জার্মানি এবং ইউরোপের অন্যান্য দেশেও ইভিএম ব্যবহার করা হয় না। শুধুমাত্র ভারতই ব্যবহার করে।” উল্লেখ্য, আগামী বছরই পুরসভার ভোট। তার আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বার্তাকে রাজনৈতিক জায়গা থেকে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

“আমরা ইভিএম চাই না, বদলে ব্যালট চাই, ব্যালট পেপার। রাজ্যে যত ভোট হবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন সেখানে ব্যালট পেপার দিয়ে ভোট সম্পন্ন করাবে। আমরা রাজ্যের নির্বাচন কমিশনকে বলবো যাতে পঞ্চায়েত, পুরসভা এবং পুরনিগমের ভোট ব্যালট পেপারেই করা যায়”।

আরও পড়ুন: টলিউডে ‘শিবির বদল’ নিয়ে একুশের মঞ্চে সরব মমতা, কটাক্ষের মুখে পাল্টা আক্রমণ অঞ্জনার

অন্যদিকে, তৃণমূল সুপ্রিমোর ‘ব্যালট ফেরানোর’ দাবি নিয়ে রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ বলেন, “ইভিএম কিংবা ব্যালট নিয়ে আমাদের কিছু চাহিদা নেই। আমরা দুটোতেই ঠিক আছি। এখনও পর্যন্ত ইভিএম ব্যবহার করেই কিন্তু জিতেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখন যখন লোকসভা নির্বাচনে পরাজয় হয়েছে তখন ইভিএমকে কাঠগড়ায় দাঁড় করাচ্ছেন। নিজের দলের পরাজয়কে ঢাকতে এখন এসব ছুতো দেখাচ্ছেন উনি”। মমতার এই বক্তব্যর পর বাম পরিষদীয় নেতা এবং বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা বলেছেন সেদিক থেকে বিচার করলে তো ওঁর ২০১১ এবং ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনকেও বাতিল ঘোষণা করতে হবে। কারণ ইভিএম ব্যবহার করেই উনি সেই দুটি নির্বাচনে জিতেছিলেন। এখন যদি ব্যালট পেপারে ফেরার কথা বলেন তাহলে অবশ্যই তাঁকে পূর্ববর্তী দুই নির্বাচনকেও বাতিল ঘোষণা করতে হবে”।

Read the full story in English

Web Title: We dont want evms but ballot papers tmc chief told her party workers

Next Story
একুশের মঞ্চে বলার সুযোগ পেলেন না সুব্রত-সুদীপ21st July Martyrs Day Rally, tmc
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com