scorecardresearch

কোহলির সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পদত্যাগ করেন! সেই মহাতারকাকেই কোচ করে আনছেন সৌরভরা

এর আগে কোচের পদে বেশিদিন থাকতে পারেননি অনিল কুম্বলে। কোহলির সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পদত্যাগ করেছিলেন। তাঁকেই ফেরাচ্ছে এবার বোর্ড।

ভারতীয় ক্রিকেটে কোহলি জমানা পতনের সূত্রপাত ঘটে গিয়েছে। টি২০ বিশ্বকাপের পরেই কোচ রবি শাস্ত্রী, ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর, বোলিং কোচ ভরত অরুণদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। আর এর মধ্যেই বিসিসিআই নতুন কোচ হিসাবে ফেরাতে চলেছে অনিল কুম্বলকে। এমনটাই জানাচ্ছে দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদন।

জাতীয় দলের প্রাক্তন ক্যাপ্টেন এবং কিংবদন্তি লেগস্পিনার কুম্বলে এর আগে হেড কোচের দায়িত্ব সামলেছিলেন। তবে বিরাট কোহলির সঙ্গে মতভেদের কারণে ২০১৭-য় কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান। গত একসপ্তাহে ভারতীয় ক্রিকেটে জোড়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা ঘটেছে। এক, মেন্টর হিসাবে ওয়ার্ল্ড কাপে জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। দুই, বিরাট কোহলি বিশ্বকাপের পরে টি২০ অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা আগাম ঘোষণা করেছেন। এতেই ভারতীয় ক্রিকেটে স্প্লিট ক্যাপ্টেনশিপের পথ মসৃণ করেছে।

আরও পড়ুন: ধাওয়ানের জন্য নির্বাচকদের সঙ্গে তীব্র বাদানুবাদ কোহলির, সামনে এল আগুনে ঘটনা

চার বছর আগে কুম্বলে পদত্যাগ করার পরে বিনোদ রাইয়ের সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রশাসক মন্ডলীর ওপর চাপ প্রয়োগ করে রবি শাস্ত্রীকে কোচ করে আনতে বাধ্য করেছিলেন কোহলি। তবে এবার কুম্বলেকে জাতীয় দলের সঙ্গে জুড়ে দিতে বদ্ধপরিকর বর্তমান প্রশাসকরা। কোহলির নেতৃত্ব-অবসরের ঘোষণার পরেই জয় শাহ নিজের বার্তায় সাফ জানিয়েছেন, বোর্ডের কাছে বর্তমানে জাতীয় দলের ভবিষ্যৎ-এর রোডম্যাপ অনেকটাই তৈরি।

জানা গিয়েছে, ২০১৭-য় কোহলির আপত্তি সত্ত্বেও কুম্বলে জাতীয় দলের কোচ হিসেবে বহাল থাকুন, চেয়েছিলেন স্বয়ং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সেই সময় বোর্ডের উপদেষ্টা কমিটির অন্যতম সদস্য ছিলেন সৌরভ। কুম্বলের জাতীয় দলে কোচিং পর্ব শুরু হয় ২০১৬-র জুনে। কুম্বলের কোচিংয়ে ভারত আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পৌঁছয়। সেখানে পাকিস্তানের কাছে পরাস্ত হয় টিম ইন্ডিয়া। বর্তমানে পাঞ্জাব কিংসের ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসাবে আমিরশাহি রয়েছেন মহাতারকা লেগস্পিনার।

আরও পড়ুন: আরসিবি নেতৃত্বও ছাড়ছেন কোহলি! সামনে এল বোর্ড কর্তার বিস্ফোরক বক্তব্য

কুম্বলের কাছে জাতীয় দলের প্রস্তাব নিয়ে যাওয়ার আগে বোর্ড টিম ইন্ডিয়ার কোচিংয়ের প্রস্তাব নিয়ে গিয়েছিল বর্তমানে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হেড কোচ মাহেলা জয়বর্ধনের কাছে। তবে জয়বর্ধনে জানিয়েছেন, তিনি শ্রীলঙ্কান দল এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্সে কোচিংয়ে আগ্রহী।

বোর্ডের সংবিধান অনুযায়ী, কুম্বলে যদি জাতীয় দলের কোচিংয়ে প্রস্তাবে সাড়া দেন, তাহলে পাঞ্জাব কিংসের দায়িত্ব ছাড়তে হবে। কারণ একই ব্যক্তি জোড়া পদে থাকতে পারবেন না। বর্তমানে আইসিসির ক্রিকেট কমিটির বর্তমান প্রধানও তিনি। সেই পদ থেকেও সরতে হবে তাঁকে।

আরও পড়ুন: পারলে ওয়ানডের নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেখাও! সৌরভের বোর্ডকেই যেন সরাসরি চ্যালেঞ্জ কোহলির

২০১৬-য় কুম্বলকে যখন জাতীয় দলের কোচ করে আনা হয়, তখন ভাবা হয়েছিল কোহলির সঙ্গে তাঁর পার্টনারশিপ দীর্ঘমেয়াদি ভিত্তিতে ভারতীয় ক্রিকেটকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। কোচের পরিকল্পনা এবং অধিনায়কের স্বতঃস্ফূর্ততা একে অন্যের পরিপূরক হবে- ভাবা হয়েছিল। তবে সেই জুটির হানিমুন পর্ব কাটতে না কাটতেই একাধিক ফাঁকফোকর বেরিয়ে আসে। কুম্বলের পরিকল্পনা কোহলির সঙ্গে একদমই খাপ খেত না।

আরও পড়ুন: রোহিতকে সরাতে বলেন কোহলি! কুৎসিত আবদারে ক্ষিপ্ত বোর্ডও, প্রকাশ্যে বিস্ফোরক রিপোর্ট

নিজের পদত্যাগ পত্রে কুম্বলে সাফ জানিয়েছিলেন, তাঁর ‘স্টাইলে’ অসূয়া রয়েছে কোহলির। “পেশাদারিত্ব, শৃঙ্খলা, দায়বদ্ধতা, সততা, পরিপূরক স্কিল, এবং দৃষ্টিভঙ্গির বৈচিত্র্য আমার কোচিংয়ের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। একটা পার্টনারশিপকে সম্মান জানাতে এগুলো মানতেই হবে।” লিখেছিলেন কুম্বলে।

কুম্বলে কোচ হয়ে আসার পরে কোহলি স্বাগত জানিয়ে টুইট করেন, “কুম্বলে স্যারকে হার্দিক শুভকামনা। আপনার জন্য অপেক্ষা করছি। আপনার জন্য ভারতীয় ক্রিকেটে দারুণ কিছু অপেক্ষা করছে।” কুম্বলের পদত্যাগের পরে কোহলির টুইটার টাইমলাইন থেকে হঠাৎই অদৃশ্য হয়ে গিয়েছিল এই টুইট।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bcci approaches anil kumble for team india head coach role after ravi shastris tenure