scorecardresearch

বড় খবর

কোহলিদের ওপর ফুঁসছে বোর্ড! বেনজির অন্তৰ্কলহে ছিন্নভিন্ন ভারতীয় ক্রিকেট

টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে বোর্ডের দূরত্ব ক্রমশ বাড়ছে। গিলের চোটে অনেকটাই বেআব্রু করে দিয়েছে টিম ইন্ডিয়ার অন্দরমহল।

ভারতীয় বোর্ড বনাম টিম ম্যানেজমেন্ট যুদ্ধ থামার কোনো ইঙ্গিতই নেই। শুভমান গিলের চোটের ধাক্কা ভারতীয় ক্রিকেটের ক্ষত একদম উন্মুক্ত করে দিয়েছে। গিলের পরিবর্ত হিসাবে শ্রীলঙ্কা থেকে পৃথ্বী শ এবং দেবদূত পাডিক্কলকে উড়িয়ে নিয়ে আসার বার্তা দিয়েছিল ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে ইংল্যান্ডে সফররত ভারতীয় দলের বার্তায় কর্ণপাত করেনি বিসিসিআই।

টাইমস অফ ইন্ডিয়া-কে বোর্ডের এক আধিকারিক সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “টিম ম্যানেজমেন্টকে নিজেদের চাহিদা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকতে হবে। দল গঠনের ক্ষেত্রে টিম ম্যানেজমেন্টের বক্তব্যকে সবসময় প্রাধান্য দিয়ে এসেছেন নির্বাচকরা। বিরাট কোহলির উপস্থিতিতে দল গড়া হয়েছিল। যারা দলে নির্বাচিত হচ্ছেন, তাঁদের কীভাবে দল ব্যবহার করবে, সেই সম্পর্কে টিম ম্যানেজমেন্টের স্বচ্ছ ধারণা থাকা জরুরি। কেএল রাহুলকে দলে ওপেনার হিসাবে নেওয়া হয়েছে। যদি ওদের পরিকল্পনার পরিবর্তন ঘটে, সেটা আমাদের জানাতে হবে।”

আরো পড়ুন: এখনো চুপ কেন! সৌরভের বোর্ডে প্রবল অখুশি কোহলির ইন্ডিয়া, ক্ষোভ প্রকাশ্যে

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতীয় দলের ম্যানেজার গিরিশ ডংরে নির্বাচক প্রধান চেতন শর্মার কাছে দুজন পরিবর্ত ক্রিকেটারকে পাঠানোর কথা বলেন সরকারি ইমেল পাঠিয়ে। সেই চিঠিতে পরিবর্ত ক্রিকেটারের জন্য দুটো কারণ জানানো হয়-
১) শুভমান গিলের চোটের জন্য দলে ওপেনারের জায়গা খালি।
২) আগামী দু-মাসে নতুন কোনো চোট ঘটলে আপদকালীন ভিত্তিতে পরিবর্ত ক্রিকেটারের প্রয়োজন হবে।

ইংল্যান্ডে সফররত ভারতীয় দলের বক্তব্য এই মুহূর্তে স্কোয়াডে ওপেনার হিসাবে রয়েছেন মাত্র মায়াঙ্ক আগারওয়াল এবং রোহিত শর্মা। ওপেনার নয়, মিডল অর্ডারে ভাবা হচ্ছে কেএল রাহুলকে। অভিমন্যু ঈশ্বরণকে জাতীয় দলের সঙ্গেই ইংল্যান্ডে স্ট্যান্ড বাই হিসাবে পাঠানো হলেও শোনা যাচ্ছে, টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থাই নেই, তাঁর ওপর। ইংল্যান্ডের শক্তিশালী পেস আক্রমণের সামনে বাংলার তারকাকে পরীক্ষা করার কোনো ইচ্ছাই নেই কোহলিদের।

আরো পড়ুন: মায়াঙ্ক-রাহুল-বিহারীতে অনাস্থা! শ্রীলঙ্কা থেকে পৃথ্বীকে উড়িয়ে আনার জোরালো আর্জি টিম ইন্ডিয়ার

টিম ম্যানেজমেন্টের এমন বক্তব্যের পরেই ক্ষোভে ফুঁসছে বোর্ড। সেই কর্তা সাফ জানিয়েছেন, “ফেব্রুয়ারি-মার্চ থেকেই জাতীয় দলের সঙ্গে রয়েছে অভিমন্যু ঈশ্বরণ। ওঁকে ওপেনার হিসাবে কেন ভাবা হচ্ছে না, তা টিম ম্যানেজমেন্টকে জানাতে হবে। তারপরেই বোর্ডের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, পরিবর্ত পাঠানো হবে কিনা!”

বোর্ডের তরফে মুখ খুলেছে নির্বাচন কমিটিও। বলা হচ্ছে, গিলের চোটের পরেও এই মুহূর্তে ভারতের হাতে চারজন ওপেনার রয়েছে- রোহিত শর্মা, অভিমন্যু ঈশ্বরণ, মায়াঙ্ক আগারওয়াল এবং কেএল রাহুল। সংকটের সময় হনুমা বিহারিকেও ওপেনার হিসাবে নামানোর অপশন রয়েছে। ২৪ জনের স্কোয়াড পাঠানো সত্ত্বেও টিম ম্যানেজমেন্টের আরো ক্রিকেটারের দাবিতে মারাত্মক ক্ষুব্ধ বোর্ড।

আরো পড়ুন: গিলের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ করিমের! পাল্টা দেওয়ার পথে হাঁটলেন সৌরভরাও

বোর্ড কর্তা জানাচ্ছেন, “অতিমারীর কারণেই বড়সড় স্কোয়াড পাঠানো হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতেও দলে এখনো চার ওপেনার রয়েছে। অতীতের জাতীয় দলের তো এমন লাক্সারি ছিল না। লম্বা সফরে ১৫ জনের মধ্যে থেকে দল নির্বাচন করতে হত। আর প্রত্যেক সফরে ২৪ জনের স্কোয়াড বাছতে হলে নির্বাচকদের হাতে কোনো কাজ-ই থাকবে না। যদি ওঁরা ২৪ জনের স্কোয়াড থেকেও দল গড়তে না পারে, তাহলে বিষয়টি ভেবে দেখতে হবে তাড়াতাড়িই। বিহারি নিজে সঙ্কটের সময় যে কোনো পজিশনে ব্যাট করতে রাজি। যদিও ও মিডল অর্ডারে ব্যাট করতে পছন্দ করে।”

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জানুয়ারিতে নির্বাচক প্রধান নির্বাচিত হওয়ার পরে চেতন শর্মার সঙ্গে টিম ম্যানেজমেন্টের যোগাযোগ অনেক স্থিমিত। টিম ম্যানেজমেন্টের বক্তব্য নির্বাচনের সময় চেতন শর্মা পক্ষপাতিত্ব করে থাকেন কিছু ক্রিকেটারের ক্ষেত্রে।

এই মুহূর্তে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্টের অতিরিক্ত দাবির কাছে নতি স্বীকার করতে নারাজ বোর্ড। দেবদূত পাডিক্কল এবং পৃথ্বী শ শ্রীলঙ্কাতেই সীমিত ওভারের ক্রিকেটে খেলবেন। পাঠানো হবে না ইংল্যান্ডে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Sports news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bcci fumes at team indias excessive demand after shubman gill injury prithvi shaw devdutt padikkal