বড় খবর

শাস্তির হাত থেকে বাঁচল নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম, স্বস্তিতে সৌরভরা

চেন্নাইয়ের দ্বিতীয় টেস্টে ভারত জেতে ৩১৭ রানের ব্যবধানে। সেই টেস্টে প্রথম দিন থেকেই পিচ স্পিনারদের সহায়তা করেছিল। চারদিনের মধ্যেই ভারত সিরিজে ১-১ সমতা এনে দিয়েছিল।

শাস্তির হাত থেকে বাঁচল আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম। মাত্র দু-দিনে ম্যাচ খতম হয়ে গেলেও মোতেরার পিচকে ‘এভারেজ’ বলে দেওয়া হল আইসিসির পক্ষ থেকে। অর্থাৎ এখনই আহমেদাবাদের তৃতীয় টেস্টের পিচকে কোনো ডিমেরিট পয়েন্ট পেতে হচ্ছে না।

কোনো পিচ পাঁচ ডিমেরিট পয়েন্ট অর্জন করলে এক বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হয় সংশ্লিস্ট ভেন্যুকে। আর সেই পয়েন্ট ১০ হয়ে গেলেই নির্বাসনের মেয়াদ বেড়ে হয় ২ বছর। আইসিসি ক্রিকেট কাউন্সিলের ম্যাচ রেফারির বুকে কোনো পিচ ‘বিলো এভারেজ’ রেটিং পেলে ১ ডিমেরিট পয়েন্ট যুক্ত হয়। ‘পুওর’ এবং ‘আনফিট’ রেটিংয়ের ক্ষেত্রে ডিমেরিট পয়েন্ট দাঁড়ায় যথাক্রমে ৩ এবং ৫। পাঁচ বছরের জন্য ডিমেরিট রেটিং পয়েন্ট সক্রিয় থাকে। ‘এভারেজ’ রেটিং পাওয়ায় মোদি স্টেডিয়ামের পিচের কোনো ডিমেরিট পয়েন্ট অর্জন হচ্ছে না।

আরো পড়ুন: অক্ষরকে বেনজির সম্মান আনন্দ মাহিন্দ্রার! কোহলিদের ‘সৌভাগ্য’ ফেরালেন বিখ্যাত শিল্পপতি

আহমেদাবাদের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তৃতীয় টেস্ট ভারত জয়লাভ করে দু-দিনের মধ্যেই। টার্নিং ট্র্যাকে পাঁচ সেশনের মধ্যে দুই দলের ৩০ উইকেট পড়ে যায়। ভারত বনাম ইংল্যান্ডের টেস্ট সিরিজে ম্যাচ রেফারির দায়িত্বে ছিলেন জাভাগল শ্রীনাথ।

ভারত সিরিজে ৩-১ ব্যবধানে জয়লাভ করে। তবে গোলাপি বলের তৃতীয় টেস্ট বিতর্কিত হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৮১ রানে অলআউট হয়ে যায়। কোনো দলই দুই ইনিংসে ১৫০ রানের গন্ডি পেরোতে পারেনি। মোতেরার গোলাপি বলের তৃতীয় টেস্ট ছিল ১৯৩১ সালের পর সংক্ষিপ্ততম।

আরো পড়ুন: রোহিতকে বাদ দেওয়ার পুরো ফায়দা নিলেন কোহলি! পেরিয়ে গেলেন হিটম্যানের দুর্ধর্ষ রেকর্ড

এই টেস্টের পরেই ইংল্যান্ডের একাধিক প্রাক্তন তারকা পিচের সমালোচনায় সরব হন। মাইকেল ভন থেকে এন্ড্রু স্ট্রস, কেভিন পিটারসেনরা প্রশ্ন তোলেন ভারতের পিচ নিয়েই। যদিও ভারতীয় প্রাক্তন তারকাদের যুক্তি ছিল, গোলাপি বলে টার্নিং ট্র্যাকে দুই দলের ব্যাটসম্যানরাই নিজেদের প্রয়োগ করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

চেন্নাইয়ের দ্বিতীয় টেস্টে ভারত জেতে ৩১৭ রানের ব্যবধানে। সেই টেস্টে প্রথম দিন থেকেই পিচ স্পিনারদের সহায়তা করেছিল। চারদিনের মধ্যেই ভারত সিরিজে ১-১ সমতা এনে দিয়েছিল। চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামের সেই পিচও আইসিসির ‘এভারেজ’ রেটিং পেয়েছে।

চেন্নাইয়ের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ড রুটের দাপুটে ব্যাটিংয়ে ভর করে জিতে যায়। কার্যত পাটা পিচে প্রভাব ফেলতে পারেনি ভারতীয় বোলাররা। সেই পিচকে বলা হয়েছে ‘ভেরি গুড পিচ’। অন্যদিকে, মোতেরার চতুর্থ তথা শেষ টেস্টে জিতে ভারত সিরিজে ৩-১ ফলাফল হাসিল করে। সেই পিচকে ‘গুড’ বলা হয়েছে আইসিসির তরফে।

ঘটনা যাই হোক, উদ্বোধনের পরেই আইসিসির কালো তালিকাভুক্ত হলে ভারতীয় বোর্ডের বদনাম হত! আপাতত সেই ঘটনা থেকে রেহাই।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: India vs england motera pink ball test pitch is marked as avarage by icc

Next Story
অক্ষরকে বেনজির সম্মান আনন্দ মাহিন্দ্রার! কোহলিদের ‘সৌভাগ্য’ ফেরালেন বিখ্যাত শিল্পপতি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com