বড় খবর

লিয়েন্ডারের বান্ধবীর সঙ্গেই রোম্যান্স! অভিযোগ শুনে ক্ষোভে ফেটে পড়েন মহেশ

লিয়েন্ডার-মহেশের জীবনের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে জি৫-এ ডোকু সিরিজ ব্রেকপয়েন্ট। সেখানেই নয়া তথ্য ঘিরে হৈচৈ।

গত সপ্তাহেই ওটিটি প্ল্যাটফর্ম জি-৫ এ মুক্তি পেয়েছে লিয়েন্ডার পেজ-মহেশ ভূপতির কেরিয়ারের ওপর নির্মিত তথ্যচিত্রের সিরিজ ব্রেকপয়েন্ট। স্বামী-স্ত্রী পরিচালকদ্বয় নীতেশ এবং অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারি নিজেদের নির্মিত ডকু সিরিজে দেখিয়েছেন, কীভাবে ভারতের মত অজ্ঞাতকুলশীল টেনিস-দেশ থেকে আবির্ভাব ঘটে লিয়েন্ডার পেজ-মহেশ ভূপতির মত দুই সুপারস্টারের। তারপরে একসঙ্গে ডাবলসে গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়। এবং সেখান থেকে দুজনের বিচ্ছেদ।

সেই তথ্যচিত্রে একটি অংশে দেখানো হয়েছে, পারস্পরিক বিশ্বাসের অভাবে দুজনের বিশ্ববিখ্যাত জুটি ভেঙে যায়। ১৯৯৯-এ ফরাসি ওপেন জেতার পরে লি-হেশ জুটি আলাদা হয়ে যায় ইগো সমস্যা, ভুল বোঝাবুঝির ভুলভুলাইয়ায়। দুজনেই তারপরে আলাদা আলাদা পার্টনারকে সঙ্গে নিয়ে কোর্টে নামতে থাকেন। লি-হেশের বিচ্ছেদে প্রবল অখুশি হন দুজনের কোচ।

আরও পড়ুন: সৌরভ-জয় শাহ কোহলির অন্যায় সহ্য করবেন না! খোলাখুলি বিস্ফোরণ পাক তারকার

সেই সময় লিয়েন্ডারের কোচ বব কারমিচেল দুজনকে ম্যাসাজ রুমে পাঠিয়ে নিজেদের ভুল বোঝাবুঝি মিটিয়ে নেওয়ার পরামর্শ দেন। দুজন ভিতরে ভিতরে মুখোমুখি হতে চাইছিলেন। মহেশ সরাসরি সেই সময় লিয়েন্ডারকে সমস্যার কথা জিজ্ঞাসা করেন। তবে লিয়েন্ডারের অভিযোগে কার্যত ছিটকে যান মহেশ।

লিয়েন্ডার পরে বলেছিলেন, “১৯৯৯ সাল প্রবল খারাপ সময় নিয়ে এসেছিল আমার কেরিয়ারে। সবকিছু যেন ভেঙেচুরে যাচ্ছিল। নিজের টেনিস পার্টনারকে হারিয়ে, বান্ধবীর সঙ্গেও সম্পর্কে টানাপোড়েন তৈরি হয়। কানাঘুষোয় শুনছিলাম, আমার বান্ধবীর সঙ্গে নাকি সম্পর্ক শুরু হয়েছে মহেশের।”

লিয়েন্ডার নিজের বান্ধবীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার অভিযোগ তুলতেই মহেশ সরাসরি লি-র মুখের দিকে তাকিয়ে জানান, “তুমি কি সিরিয়াস? হৃদয় থেকে তুমি কি বিশ্বাস করো, আমি এমন কিছু করব?” মহেশ ভাবতে পারেননি এত বড় অভিযোগে অভিযুক্ত হতে হবে তাঁকে।

বন্ধু মহেশ সরাসরি জবাব দেওয়ার বদলে রাগে ফেটে পড়েন লিয়েন্ডারের ওপর। উঠে ঝড়ের গতিতে দরজা ঠেলে বেরিয়ে যান। আর আলোচনা চালাতে চাননি মহেশ। উত্তর তো দেন-ই নি।

লিয়েন্ডারের কোন বান্ধবীর জন্য বিখ্যাত জুটির ফাটল চওড়া হয়, তা সরাসরি জানানো হয়নি। তবে টেনিস মহলের ব্যাখ্যা, সেই সময় বলি অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরীর সঙ্গে ডেটিং করছিলেন লি। ২০০০ নাগাদ দুজনের ব্রেক আপ হয়ে যায়। পরে মহিমা লিয়েন্ডারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করে বলে দিয়েছিলেন, সম্পর্কে থাকাকালীনই সঞ্জয় দত্তের দ্বিতীয় স্ত্রী রিয়া পিল্লাইয়ের সঙ্গে নতুন ইনিংস শুরু করেছিলেন আড়ালে।

আরও পড়ুন: মর্গ্যানকে বাদ দিক কেকেআর! জোড় হাতে শাহরুখের দলকে আর্জি তারকার

মহিমার সঙ্গে ব্রেক আপের পরে লিয়েন্ডার এবং রিয়া দুজনে একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন। দুজনের একটি কন্যাও রয়েছে। কয়েক বছর পরে লিয়েন্ডার-রিয়ার সম্পর্কও ভেঙে যায়। বর্তমানে লিয়েন্ডার কিম শর্মার সঙ্গে ডেট করছেন।

অন্যদিকে, মহেশ ভূপতি ২০০২-এ শ্বেতা জয়শঙ্করকে বিয়ে করেন। ২০০৭-এ দুজনের ডিভোর্স হয়ে যায়। ২০১১-এ মহেশ বলি অভিনেত্রী লারা দত্তকে বিয়ে করেন। দুজনের কন্যাসন্তানের নাম সাইরা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Leander paes suspected mahesh bhupati having an affair with his then girlfriend revealed in documentary series on zee5

Next Story
চাহাল-ম্যাক্সওয়েল ম্যাজিকে প্লে অফে আরসিবি! হেরে সীমানার বাইরে পাঞ্জাব
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com