বড় খবর

দিনের সেরা প্রযুক্তির খবর: কোন অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন, ফেসবুক অবতারে ভরে উঠছে টাইমলাইন

দিনের সেরা প্রযুক্তির খবর একসঙ্গে পড়ুন এই প্রতিবেদন

Read today’s tech news headline in one place: ফেসবুক ইউজাররা এখন ব্যস্ত হয়ে উঠেছে ফেসবুক অবতার তৈরি করতে।ভারতীয়দের গোপনীয়তা রক্ষা করতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে টিকটকের উপর। কাজেই, টিকটকের মজা থেকে বঞ্চিত ভারতীয়রা।জেনে নিন নিষিদ্ধ অ্যাপের পরিবর্তে কী কী অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন আপনি?

রোজগার হারানোর অনিশ্চিয়তায় ভুগছেন টিকটক কর্মীরা, কী বলছেন সিইও?

ভারতে নিষিদ্ধ টিকটক

মায়ার ভারতীয় ২,০০০ কর্মচারীকে আশ্বাস দিয়ে বলেন, “আমাদের কর্মীরাই আমাদের সবথেকে বড় শক্তি। তাই তাঁদের ভাল রাখা আমাদের প্রধান কর্তব্য। তাঁদের বলতে চাই, তাঁদের সুযোগ ও ফের আগের পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য ১০০ শতাংশ চেষ্টা করছি আমরা।

কেমন করে তৈরি করবেন আপনার “ফেসবুক অবতার”?

ফেসবুক ইউজাররা এখন ব্যস্ত হয়ে উঠেছে ফেসবুক অবতার তৈরি করতে। মূলত এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অস্ট্রেলিয়া নিউজিল্যান্ড ইউরোপ এবং কানাডার বাসিন্দাদের জন্য প্রাথমিকভাবে উপলব্ধ ছিল। বেশকিছু ভারতীয় ইউজার এখন ব্যবহার করতে পারছেন এই নতুন ফিচার। এই নতুন ফিচারে ইউজার নিজেকে কার্টুনের চরিত্র দিতে পারবেন। দিন দুয়েকের মধ্যেই বিশ্বজুড়ে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এই ফিচার।

তবে এখনও অনেকের মনে প্রশ্ন এই ফেসবুক অবতার তৈরি করে কি করে? ফেসবুক ইউজারের একাংশ নিজেকে কার্টুন রূপে দেখার জন্য ইতিমধ্যে ব্যবহার করে ফেলেছে। আপনি যদি সেই দলে নাম লেখাতে চান, তাহলে জেনে নিন কিভাবে তৈরি করবেন ফেসবুক অবতার।

 

টিকটক চলছে না? পরিবর্তে ব্যবহার করুন এই অ্যাপ

 

ভারতীয়দের গোপনীয়তা রক্ষা করতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে টিকটকের উপর। কাজেই, টিকটকের মজা থেকে বঞ্চিত ভারতীয়রা। কিন্তু সেই একই ভিডিও প্ল্যাটফর্ম যদি ব্যবহার করতে চান তাহলে রয়েছে উপায়। ২০১৮ সাল থেকেই টিকটকের প্রতিদন্ধী হয়ে দেখা দিয়েছিল একাধিক ভারতীয় অ্যাপ। তবে টিকটকের সঙ্গে পাল্লা দিতে ব্যর্থ হয়েছিল। অবশ্য, টিকটকের নিষেধাজ্ঞার আগেই ভারতীয়রা শুরু করেছেন ‘চিঙ্গারি’ নামক অ্যাপের ব্যবহার, যার প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে রয়েছেন এক বাঙালিও।  এছাড়া আর কোন কোন অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন ?

 

নিষিদ্ধ চিনা অ্যাপের বদলে কোন কোন অ্যাপ ব্যবহারের উপযুক্ত? জেনে নিন

তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে এ ব্যাপারে জানানো হয়েছে, ওই অ্যাপগুলি ‘দেশের সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা, দেশের সুরক্ষার জন্য ক্ষতিকারক। সেকারণেই ওই অ্যাপগুলিকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।’ তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৯এ ধারায় অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। টিকটক ইন্ডিয়ার প্রধান নিখিল গান্ধী হলেছেন, ‘অন্তর্বর্তী আদেশ জারি করে ভারত সরকার টিকটক সহ ৫৯ অ্যাপ ব্লক করেছে। সেই আদেশ পালনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সরকারের উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের প্রতিক্রিয়া ও ব্যাখা জানানোর জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।’গান্ধীর দাবি, ‘তথ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত ভারত সরকারের যাবতীয় বিধি মেনে চলে টিকটক ইন্ডিয়া। চিন সহ কোনও বিদেশি সরকারের কাছে টিকটকের ভারতীয় গ্রাহকদরে তথ্য দেওয়া হয়নি। আমরা গ্রাহকদের গোপনীয়তা এবং অখণ্ডতার উপর সর্বাধিক গুরুত্ব বজায় রাখি।’

কিন্তু এখন প্রশ্ন, যারা এই সমস্ত অ্যাপের নিয়মিত ইউজার ছিলেন, তাঁরা এখন কী করবে? এই প্রতিবেদন আপনাকে খানিক সুরাহা দিতে পারে। জেনে নিন নিষিদ্ধ অ্যাপের পরিবর্তে কী কী অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন আপনি? বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন এখানে

 

বিপদ সামনেই, দূরে সরে দাঁড়ান, জানাবে অ্যাপ

সোশাল ডিসটেন্স বজায় রাখতে সাহায্য করবে অ্যাপ

দিন দিন ভারতে বেড়ে চলেছে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা। এ হেন অবস্থায়, মুশকিল হয়ে উঠছে সোশাল ডিসটেন্স বজায় রাখা। কিন্তু করকোনার হাত থেকে বাঁচতে আপনাকে অন্তত খানিক দুরত্ব রাখতেই হবে। কার থেকে কতটা দুরত্ব বজায় রাখলে আপনি সুরক্ষিত থাকবেন, তা জানিয়ে দেবে অ্যাপ। এখন স্মার্টফোন কম বেশি সকলের কাছেই রয়েছে। সেক্ষেত্রে অ্যাপ অন রাখলে আপনাকে নোটিফিকেশন মারফত জানিয়ে দেবে “দূরে সরে দাঁড়ান”। অ্যাপ গুলি হল- 1point5,WaitQ, DROR।

Get the latest Bengali news and Technology news here. You can also read all the Technology news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Todays top tech headlines technology latest updates 1 july

Next Story
কেমন করে তৈরি করবেন আপনার “ফেসবুক অবতার”?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com