scorecardresearch

বড় খবর

CGO-তে ঢুকলেন-বেরলেন অভিষেক, কিন্তু চেনা ছবি উধাও, তৃণমূলের কৌশল বদল!

সহযোগিতার তত্বেও পরিবর্তন ঘটেছে।

CGO-তে ঢুকলেন-বেরলেন অভিষেক, কিন্তু চেনা ছবি উধাও, তৃণমূলের কৌশল বদল!
সিজিও কমপ্লেক্স। ছবি- পার্থ পাল

নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় ১৮ মে সিবিআই তলব করেছিল তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালকে। সেদিনও সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সের সামনে ভিড় করেছিল দলের কর্মী-সমর্থকদের একাংশ। কয়লাপাচার কাণ্ডে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের তলবে শুক্রবার সিজিও কমপ্লেক্সে হাজির হয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এবার আর কর্মী-সমর্থকদের দেখা নেই। সিজিও কমপ্লেক্সের দু’দিকের গেটেও পুলিশ আধিকরিক-কর্মীদের ভিড়। তাছাড়া এখন সহযোগিতার তত্বেও পরিবর্তন ঘটেছে।

চিটফান্ড কাণ্ডে এর আগে তাবড় তৃণমূল নেতৃত্ব সিজিও কমপ্লেক্সে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজির হয়েছেন। সারদাকাণ্ডে তৎকালীন তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড মুকুল রায়কে তলব করেছিল সিবিআই। সেদিন কয়েক হাজার তৃণমূল নেতা-কর্মী-সমর্থক হাজির হয়েছিলেন সিজিও কমপ্লেক্সের আশেপাশে। এমন ঘটনা তখন প্রায়শই ঘটতো। তবে এদিনের ঘটনা জানান দিল দলের স্ট্র্য়াটেজি বদলে গিয়েছে। দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হাজিরা দিলেও সেই ভিড় উধাও।

আরও পড়ুন- “শুভেন্দু-বিনয়ের ফোনে কথা হয়েছে”, বিস্ফোরক ক্লিপ সামনে আনার দাবি অভিষেকের

গরুপাচার ও কয়লাপাচার কাণ্ডের তদন্তে কড়া নিরাপত্তা ব্য়বস্থা সিজিও কমপ্লেক্সে। দুদিকের গেটে ও কমপ্লেক্স ঘিরে রয়েছে প্রায় শ’দেড়েক পুলিশ আধিকারিক ও কর্মী। নিশ্চিদ্র নিরাপত্তায় সিজিও কমপ্লেক্সে প্রবেশের ক্ষেত্রেও কড়া বিধিনিষেধ। সূত্রের খবর, ইডির দফতরেও নজরদারি আগের থেকে অনেকটা বেড়ে গিয়েছে। ইডি অফিসে কর্মীদের মোবাইল ব্য়বহারের ক্ষেত্রেও বিধিনিষেধ রয়েছে।

এর আগে তৃণমূল নেতাদের গ্রেফতারের পর তদন্তকারী সংস্থার প্রভাবশালী তকমায় পাকে পড়তে হয়েছে অনেককেই। রাজনৈতিক মহলের মতে, কেউ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার তলবে সিজিওতে হাজির হলেই কর্মী-সমর্থকদের ভিড় সেই তকমায় শিলমোহর ফেলে দেয় সহজেই। শুক্রবার দিনভর ৭ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করলেও সিজিওর আশেপাশে কোনও দলীয় নেতা-কর্মীসমর্থকদের টিকি পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি। এক্ষেত্রে রাজনৈতিক সংস্কৃতির বদল ঘটেছে। সারদাকাণ্ডে সিবিআইকে সহযোগিতা করব বলে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের চাপে পড়েছিলেন বাংলার চানক্য মুকুল রায়, এমন জল্পনা ছিল রাজনৈতিকমহলে। পরবর্তীতে মুকুল রায় দলবদলও করেন। এখন কিন্তু ইডির জিজ্ঞাসাবাদের পরই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহযোগিতার কথা শুধু বলেননি, ৩ বার নয় ৩০ বার ডাকলেও তিনি হাজির হবেন।

আরও পড়ুন- আপাতত গ্রেফতার করা যাবে না, সুপ্রিম নির্দেশে সাময়িক স্বস্তি অভিষেকের

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Abhishek banerjee tmc coal scam case cbi cgo