scorecardresearch

বড় খবর

বছর শুরুতেও জয় শ্রীরাম স্লোগান বিতর্কে তোলপাড় রাজনীতি, লাভের গুড় কে খাচ্ছে?

বঙ্গে জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে বিতর্ক অব্যাহত।

বছর শুরুতেও জয় শ্রীরাম স্লোগান বিতর্কে তোলপাড় রাজনীতি, লাভের গুড় কে খাচ্ছে?
বছর শুরুতেও জয় শ্রীরাম স্লোগান বিতর্ক পিছু ছাড়ল না।

বিগত কয়েক বছর ধরেই জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে বিতর্ক অব্যাহত। বছর শুরুতেও জয় শ্রীরাম বিতর্ক পিছু ছাড়ল না। নতুন বছরে বিতর্ক আরও বাড়বে তা নিয়ে কোনও সন্দেহের অবকাশ নেই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে জয় শ্রীরাম স্লোগান শুধু বাংলাতে নয়, উত্তরপ্রদেশের বেনারস, রাজস্থানের আজমের শরিফেও শোনা গিয়েছে।

২০১৯ -এ মুখ্যমন্ত্রীর যাত্রাপথে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেওয়া নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত। মুখ্যমন্ত্রী নিজে গাড়ি থেকে নেমে স্লোগানকারীদের উদ্দেশে তেড়ে গিয়েছেন সেই দৃশ্যও দেখা গিয়েছে। তারপর ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে জয় শ্রীরাম ধ্বনি শোনা গিয়েছে। এবার হাওড়া স্টেশনে বন্দে ভারত ট্রেনের উদ্বোধনেও ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে জয় শ্রীরাম ধ্বনি চলল। প্রতিবাদে মঞ্চে উঠলেন না মুখ্যমন্ত্রী। উত্তরপ্রদেশে বেনারসে আরতি দেখতে দশাশ্বমেধ ঘাটে যাওয়ার পথেও মমতাকে দেখে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেওয়া হয়। একই স্লোগান চলে আজমের শরিফেও। তবে এখন জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে বিজেপির মধ্যে ভিন্ন মত শোনা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন- মমতাকে দেখে জয় শ্রীরাম স্লোগানে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ মোদী? বিরক্ত বিজেপির শীর্ষ নেতারাও?

বিজেপির রাজ্য সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি চার্লস নন্দী মনে করেন, এই স্লোগানের ফলে লাভ হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। টুইটারে চার্লস লিখেছেন, ‘জয় শ্রীরাম আসলে অপরিপক্ক স্লোগান। অতীতে ২০২১ সালের ভোটের আগে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের অনুষ্ঠানে এই ধরণের স্লোগান দলের বিরুদ্ধে গিয়েছিল।’ তবে বিজেপি যে এই স্লোগান বিতর্কে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছে তা একেবারেই নয়। স্লোগানের বিরোধিতা করেছে তাও নয়। বরং ঘুরিয়ে এদিন অমিত মালব্য যে টুইট করেছেন তাতে স্পষ্ট মমতার উপস্থিতিতে জয় শ্রীরাম স্লোগান বিজেপি কার্যত সমর্থনই করছে বলেই মনে করছে অভিজ্ঞ মহল। রাজনৈতিক মহল মনে করছে, যে ভাবে বাংলা ও ভিন রাজ্যের পথে-ঘাটে, কেন্দ্রীয় সরকারের অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়া হচ্ছে তা এখনই বন্ধ হওয়ার কোনও লক্ষণ নেই।

তৃণমূল নেতৃত্ব জয় শ্রীরাম স্লোগানকে রাজনীতির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়ার তীব্র বিরোধিতা করছে। যদিও বিজেপির যুক্তি, জয় শ্রীরাম স্লোগান আবেগ। এর সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। এটা ভিতর থেকে আসে। সম্প্রতি শীলা ভাট নামে এক মহিলা টুইটে লেখেন, ‘মমতার বিরুদ্ধে জয় শ্রী রাম স্লোগান দেওয়ায় মোদী ও বিজেপি হাইকমান্ড ক্ষুব্ধ।’ বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য ওই টুইটটি রিটুইট করে লিখেছেন, ‘এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।’

আরও পড়ুন- প্রধানের সঙ্গেই গলা-সমান ‘দুর্নীতি’তে ডুবেছেন উপপ্রধানও, দল থেকে তাড়াল তৃণমূল

তবে সেই টুইটে কোথাও কিন্তু এই স্লোগান দেওয়া নিয়ে পক্ষে বা বিপক্ষে টু শব্দটি করা হয়নি। রাজনৈতিক মহলের পর্যবেক্ষণ, নীরবতাই সম্মতির লক্ষণ বলেই অনেকে মনে করেন। সেক্ষেত্রে নতুন বছরে ফের জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে জোরদার বিতর্ক হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। এই স্লোগানে ফায়দা কার? জানান দেবে ভোট বাক্স।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Beginning of the year there was a controversy over jai shri ram slogans in bengal