scorecardresearch

বড় খবর

মমতা সরকার কেন্দ্রীয় দলকে সহযোগিতায় রাজি, নবান্নের চিঠি দিল্লিকে

কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিল নবান্ন। স্বারাষ্ট্রমন্ত্রকরে কড়া চিঠির জবাবে পাল্টা চিঠি দিয়ে এ কথাই জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা।

অমিত শাহ ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিল নবান্ন। স্বারাষ্ট্রমন্ত্রকরে কড়া চিঠির জবাবে পাল্টা চিঠি দিয়ে এ কথাই জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা। তবে, প্রতিনিধি দলকে অসহযোগিতার যে অভিযোগ কেন্দ্র তুলেছে, রাজ্যের তরফে তা খারিজ করা হয়েছে ওই চিঠিতে।

মুখ্যসচিব কেন্দ্রকে চিঠিতে জানিয়েছেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ সরকার কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে সহযোগিতা করছে না এটা ঠিক নয়। প্রতিনিধি দলের সদস্যরা আমাদের সঙ্গে আগাম আলোচনা ছাড়াই কেন্দ্রীয় দল রাজ্যে এসেছে। ফলে, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের পরিবহণের ব্যবস্থা করা যায়নি এবং কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরাও কোনও সাহায্য রাজ্যের কাছে চাননি।’ চিঠিতে বলা হয়েছে, রাজ্য প্রশাসনের আধিকারিকরা কেন্দ্রীয় দলের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করছেন এবং করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের করা পদক্ষেপগুলি তাঁদের জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিবকে দেওয়া চিঠিতে রাজীব সিনহা জানিয়েছেন, ‘বিপর্যয় মোকাবিলা আইনের অধীনে জারি কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ ও সুপ্রিম কোর্টের আদেশ বাস্তবায়ণে রাজ্য সরকার সব ধরনের আশ্বাস দিচ্ছে।’

আরও পড়ুন- কেন্দ্রের নির্দেশ মানতে রাজ্য বাধ্য, নবান্নকে কড়া চিঠি দিল্লির

বাংলায় কেন্দ্রীয় দল পাঠানো নিয়ে রাজ্য় বনাম কেন্দ্র সংঘাত তুঙ্গে। পশ্চিমবঙ্গে পাঠানো কেন্দ্রীয় দলকে সবরকম সহযোগিতা করতে হবে, এমন বার্তা জানিয়ে মঙ্গবার রাজ্যকে কড়া চিঠি দিয়েছিল কেন্দ্র। বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে কেন্দ্রের নির্দেশ মানতে রাজ্য় যে বাধ্য়, সেকথাই মমতা সরকারকে কার্যত স্মরণ করিয়ে দিয়ে চিঠি দেয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তাতে উল্লেখ ছিল, ‘কলকাতা ও জলপাইগুড়িতে যে কেন্দ্রীয় দল পাঠানো হয়েছে, তাতে এটা দেখা গিয়েছে যে রাজ্য ও স্থানীয় প্রশাসন দলের সঙ্গে সহযোগিতা করছে না। এমনকি, তাঁদেরকে পরিদর্শন করতে দেওয়া হচ্ছে না। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না।’

আরও পড়ুন- ‘বাংলায় কেন্দ্রীয় দলের সফর অ্যাডভেঞ্চার ট্যুরিজম’, কটাক্ষ তৃণমূলের

লকডাউনের নিয়ম রাজ্যের বেশ কয়েকটি রাজ্যে মানা হচ্ছ না বলে জানিয়েছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। সেই তালিকায় ছিল বাংলার নাম। রবিবার মন্ত্রক জানায় করোনা লকডাউন পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে পশ্চিমবঙ্গ, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশে কেন্দ্রীয় দল পাঠানো হবে। সোমবারই রাজ্যে পৌঁছায় কেন্দ্রীয় দল। মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গে কেন্দ্রীয় দলের প্রতিনিধিরা পরিস্থিতিতি খতিয়ে দেখতে বরোতে পারেনি বলে অভিযোগ। তবে, অন্যদলটি কলকাতায় কয়েকটি জায়গায় যায়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অভিযোগ, রাজ্য সলরকারের অসযোগিতায় কারণেই কেন্দ্রীয় দল কাজ করতে বাধা পাচ্ছে। যা বিপর্যয় মোকাবিলা আইন বিরুদ্ধ। এরপরই কেন্দ্রের নির্দেশ মানতে রাজ্য যে বাধ্য, সেকথাই মমতা সরকারকে কার্যত স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয় মোদী সরকারের পক্ষ থেকে। কেন্দ্রীয় এই পদক্ষেপে স্বাভাবিকভাবে অসন্তোষ প্রকাষ করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল। জোড়া ফুল শিবিরের দাবি, ‘যখন রাজ্যগুলো করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়ছে  তখন কেন্দ্র রাজ্যগুলির সঙ্গে লড়াই করতে ব্যস্ত।’

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mamata banerjee leads bengal govt assures cooperation to central teams visiting state after modi govt letter