scorecardresearch

বড় খবর

‘বন্দরে আটক ২০০ কোটির মাদক তৃণমূল নেতার’, বিস্ফোরক দাবিতে তোলপাড় ফেললেন সুকান্ত

তৃণমূলের বিরুদ্ধে এবার আন্তর্জাতিক মাদক পাচার চক্রের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ বিজেপির।

‘বন্দরে আটক ২০০ কোটির মাদক তৃণমূল নেতার’, বিস্ফোরক দাবিতে তোলপাড় ফেললেন সুকান্ত
দুর্নীতি ইস্যুতে তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুলে সোচ্চার সুকান্ত মজুমদার।

তৃণমূলের বিরুদ্ধে এবার আন্তর্জাতিক মাদক পাচার চক্রের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ বিজেপির। কিছুদিন আগে কলকাতা বন্দরে প্রায় ২০০ কোটির মাদকের কন্টেনার আটক করে গুজরাট এটিএস। তার আগে বেশ কিছুদিন বন্দরেই পড়েছিল ওই কন্টেনারটি। প্রায় ৪০ কেজি হেরোইন তৃণমূলের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি শরিফুল মোল্লাকে পাঠানো হয়েছিল বলে চাঞ্চল্যকর দাবি বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের।

শরিফুল মোল্লা নামে ওই ব্যক্তি নাকি সন্দেশখালি ১ ও ২ নং ব্লকের তৃণমূল সভাপতি শিবু হাজরা ও শেখ শাজাহানের ঘনিষ্ঠ বলে দাবি সুকান্তর। এমনকী কলকাতা বন্দরে পড়ে থাকার সময় ওই কন্টেনারটি ছাড়াতে রাজ্যের দাপুটে এক মন্ত্রীও হস্তক্ষেপ করেছেন বলে বিস্ফোরক দাবি সুকান্তর।

এবার আন্তর্জাতিক মাদক পাচার চক্রের সঙ্গে তৃণমূলের যোগ টানল বিজেপি। দুর্নীতি ইস্যুতে তৃণমূলকে ধুয়ে দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তাঁর দাবি, ”গত ৯ সেপ্টেম্বর ২০০ কোটি টাকার হেরোইন উদ্ধার হয়। শরিফুল মোল্লার কাছেই ওই মাদক পাঠানো হয়েছিল। ” সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্দরে কন্টেনারটি পড়ে থাকলেও নিয়ে যাননি শরিফুল।

বিজেপির দাবি, কাগজপত্রের কিছু সমস্যার করণেই মাদকভর্তি কন্টেনারটি ছাড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়নি। পরে ৯ সেপ্টেম্বর বন্দরে তল্লাশি চালিয়ে গুজরাট এটিএস তা বাজেয়াপ্ত করে। কলকাতা বন্দরে মাদকভর্তি কন্টেনারের পিছনে তৃণমূলের যোগ রয়েছে বলে দাবি করেছে বিজেপি। এপ্রসঙ্গে বেশ কয়েকটি নামও সামনে এনেছেন রাজ্য বিজেপির এই শীর্ষ নেতা। নাম না করে এদিন রাজ্যের এক মন্ত্রীকেও নিশানা করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন- উত্তাল বিধানসভা, দুর্নীতি ইস্যুতে সোচ্চার BJP, ‘ডোন্ট টাচ মাই বডি’ টিপ্পনিতে তুমুল বিক্ষোভ তৃণমূলের

সাংবাদিক বৈঠকে এদিন সুকান্ত মজুমদার বলেন, ”কলকাতা বন্দরে আটক হয় একটি কন্টেনার। শেখ শাজাহান মাদক আনতো। কন্টেনারটি বন্দরে আসার পর পড়েছিল। সেটি ছাড়াতে কমপক্ষে ১৭-১৮ বার কেন রাজ্যের এক মন্ত্রীর চেম্বারে এসে বৈঠক করেছেন শাজাহান? কে সেই মন্ত্রী? সেই মন্ত্রীই কি মাদকের লগ্নিকারী? শাজাহান শেখের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক কী? দুবাই হয়ে মাদক আনা হয়। হেরোইন পাচারকারীদের সঙ্গে যোগ তৃণমূলের।”

আরও পড়ুন- কয়লাকাণ্ডে এবার মাঠে CID, দাপুটে এই বিজেপি নেতাকে কালই তলব

শরিফুল মোল্লা নামে এক ব্যক্তির নাম করেছেন সুকান্ত মজুমদার। এই হেরোইন তার কাছেই পাঠানো হয়েছিল বলে দাবি করেছেন বিজেপি নেতা। শরিফুলের সঙ্গে তৃণমূলের যোগ টেনেছেন তিনি। সুকান্ত বলেন, ”শরিফুল মোল্লা কোথায়?” শরিফুল মোল্লার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালি ১ ও ২ নং পঞ্চায়েত সমিতির তৃণমূল সভাপতি শিবু হাজরা ও শেখ শাজাহানের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Tmc is involved drug smuggling alleged by bjp492185