বড় খবর

অস্ট্রেলিয়ার হারে শিক্ষাই নেয়নি ইংল্যান্ড, ভারতের বিরুদ্ধে দিতে হল একই ভুলের মাশুল

ভারতকে পাল্টা স্লেজিংয়ের পথে হাঁটতে গিয়েই বিপদে পড়ে ইংল্যান্ড। অতীতের ভুল থেকে কার্যত কোনও শিক্ষাই নেয়নি ইংল্যান্ড। ভারতকে তাতালেই বিপদ।

অজিদের কাছ থেকে কার্যত কোনও শিক্ষাই নেয়নি ইংল্যান্ড! লর্ডস টেস্টের পরেই প্রমাণিত। ভারতের বিপক্ষে লর্ডসে লজ্জাজনক হারের পর কারণ খুঁজতে ব্যস্ত ইংল্যান্ড শিবির। দলের বেশ কয়েকজন প্রাক্তন তারকা ইতিমধ্যেই লর্ডসের হারের জন্য কাঠগড়ায় তুলেছেন দলের একচেটিয়া আধিপত্যসুলভ মনোভাবকেই।

ব্যাট হাতে ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা ভারতীয় পেসের কাছে তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে পরেছে। ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের ব্যাটিং লাইনআপ এর পরিবর্তনের পক্ষে এর আগে একাধিকবার সওয়াল করেছেন প্রাক্তনীরা। যদিও এই বিষয়ে ইংল্যান্ডের টিম ম্যানেজমেন্ট গা ছাড়া মনোভাবই দেখিয়ে এসেছে এতদিন।

আরও পড়ুন: এই পাঁচ তারকা না থাকলে লর্ডসে ভারতের কীর্তি সম্ভবই ছিল না, চিনে নিন সুপারস্টারদের

এমনকি বলা হচ্ছে, ঘরের মাঠে দ্বিতীয় টেস্টে প্রয়োজনের তুলনায় দল অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী ছিল। আর এই অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসকেই হারের অন্যতম কারন হিসাবে তুলে ধরেছেন দলের প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।

তবে লর্ডস টেস্টে ভারতের পাতা ফাঁদে পা দিয়েই মোক্ষম ভুল করে বসেন ইংরেজরা। এটাই ইংল্যান্ডের মূল কৌশলগত ভুল। এখানেই ম্যাচ থেকে হারিয়ে যায় ইংল্যান্ড। এমনিতেই চলতি সিরিজে ইংল্যান্ডের হয়ে রুট বাদে কেউ ফর্মে নেই। তবে ব্যাট হাতে পারফর্ম না করতে পারলেও করে জেমস অ্যান্ডারসন, জস বাটলার এবং অলি রবিনসনরা বিরাট কোহলিদের বিরুদ্ধে স্লেজিং যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছিলেন। আর এটাই ইংল্যান্ডের কাছে দিন শেষে বুমেরাং হয়ে ফিরে আসে।

আরও পড়ুন: রবিনসনকে সিঁড়িতেই ধাক্কাধাক্কি! মাঠের ঝামেলা বাইরে নিয়ে বেনজির বিতর্কে কোহলিরা

উত্তেজনার আঁচ চরমে পৌঁছেছিল পঞ্চম দিন। যখন মহম্মদ শামি এবং জাসপ্রিত বুমরা ব্যাট করতে নামার পরে মার্ক উডদের বাউন্সার যুদ্ধ শুরু হয়। এমনিতেই ইশান্ত শর্মা আউট জয়ে যাওয়ার পরে দুই পেসারকে ইংল্যান্ড ধর্তব্যের মধ্যে ধরেনি। তবে পাল্টা শরীরী আক্রমণের পথে হেঁটেই বুমরা-শামিদের তাতিয়ে দেয় ইংল্যান্ড। আর তেতে যাওয়া শামি-বুমরার অপরাজিত ৮৯ রানের পার্টনারশিপে ভর করেই ভারত ম্যাচে জেতার আসল রসদ পেয়ে যায়।

প্রথম ইনিংসে বুমরার বাউন্সার বৃষ্টিতে ক্ষিপ্ত হন অ্যান্ডারসন। তারই পাল্টা হিসাবে বুমরা ব্যাট করতে নামার পরেই আউট করার বদলে ভারতীয় তারকা পেসারকে মার্ক উড, অলি রবিনসনরা বডি লাইন বল করতে থাকেন। শেষ পর্যন্ত মজম্মদ শামির ৫৬ রানের সঙ্গে বুমরার অপরাজিত ৩৪ ম্যাচে ফারাক গড়ে দেয়। ব্যাটের পর বল হাতে আগুন ঝরিয়ে বুমরা দ্বিতীয় ইনিংসে তিন উইকেট দখলও করেন। ভারতীয়দের তাতিয়ে দিয়ে এই ট্যাকটিক্যাল ভুলই করে বসেন ইংরেজরা।

আরও পড়ুন: কোহলির মত কুৎসিত গালি দিতে কাউকে দেখিনি! বিস্ফোরক বার্তায় বিরাট ক্ষোভ তারকার

”আমাদের একজনের সঙ্গে স্লেজিং করলে, আমরা সবাই মিলে তার প্রত্যুত্তর দেব”। ঐতিহাসিক জয়ের পর মুখ খুলে এমনটাই বলে দিয়েছিলেন কেএল রাহুল। তাঁর বক্তব্যেই পরিষ্কার এই ভারতীয় দলের সংহতি সম্পূর্ণ অন্য লেভেলের। এই টিম বন্ডিং, দলগত সংহতিতেই ভারতীয় বিশ্ব ক্রিকেটে বিপক্ষের ত্রাস হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ইংল্যান্ডের আগে অস্ট্রেলিয়া দলও ভারতের বিরুদ্ধে এই কৌশলগত ভুলই করেছিল।চলতি বছরের জানুয়ারিতে ব্রিসবেন টেস্টের কথাই ধরা যাক। গাব্বায় টিম পেইনের দলের সঙ্গে যা ঘটেছিল সেখান থেকে জো রুটরা এর একটি শিক্ষা নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে নামতে পারতেন।

সিডনি টেস্টে রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে পেইনের স্লেজিং ছিল, “গাব্বায় তোমাকে পাওয়ার জন্য অপেক্ষায় রইলাম।” এই স্লেজিং-এর ফল হাড়েহাড়ে টের পায় অজিরা। ব্রিসবেনের গাব্বা অস্ট্রেলীয় দূর্গ হিসাবে কুখ্যাত। সেখানেই ৩২ বছরে প্ৰথম দক হিসাবে ইতিহাস গড়ে জেতে ইন্ডিয়া। সিরিজে হারের পর অসি অধিনায়ককে প্রকাশ্যে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাইতে হয়।

আরও পড়ুন: লর্ডসে রুটের তিন মহা-ভুল, যাতে লজ্জার হার ইংল্যান্ডের! কাটাছেঁড়ায় রক্তাক্ত নেতা

ইংল্যান্ড দল কিভাবে সেই একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করল সেটাই এখন সব থেকে বড় প্রশ্ন। বিদেশের মাটিতেও দর্শকরা দলের ১২তম সদস্য হয়ে উঠতে পারে। লর্ডসে ইংরেজ দর্শকদের সমানে সমানে টেক্কা দিয়েছে ভারতীয় সমর্থকরা। সারাক্ষণ চিয়ার ককরে গিয়েছে কোহলিদের। স্বদেশীয় দর্শকদের সামনে উদ্দীপিত ক্রিকেট উপহার দিতে টিম কোহলি কোনও কার্পণ্য করেনি।

লর্ডস টেস্ট শেষ হতেই ইংল্যান্ড দলের অধিনায়ক জো রুট পরিষ্কার করে দিয়েছেন ভারতীয়দের সঙ্গে মাঠে যে লড়াই-ই থাকুক, মাঠের বাইরে তিক্ততার কোনও অবকাশই নেই।

ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট বলে দিয়েছিলেন, “বিরাট তার স্টাইলে খেলেছেন এবং নিজের স্বাভাবিক কাজ করেছেন, ঠিক যেমন আমি আমার মতো করেই ক্রিকেট খেলেছি, যা স্বাভাবিকভাবেই ভিন্ন। বিরাট এবং তার দল ন্যায্য ভাবেই খেলেছে। ওঁরা এমন কিছু আবেগপ্রবণ ঘটনায় ঝাঁপিয়ে পড়েছিল যা তাদের একটি টার্গেট সেট করে দিতে সাহায্য করেছিল।”
রুট আরও বলেন, “আমি মনে করি না যে মাঠের মধ্যে কারও সঙ্গে কারোর খারাপ সম্পর্ক রয়েছে।”

লর্ডসের ভুল কাটিয়ে লিডসে ইংরেজ শিবির কতটা উদীপ্ত ক্রিকেট উপহার দেয় আগামী সপ্তাহে, সেটাই দেখার।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Sports news here. You can also read all the Sports news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: India vs england england did not learn from australia sledging episode with india in recent past

Next Story
এই পাঁচ তারকা না থাকলে লর্ডসে ভারতের কীর্তি সম্ভবই ছিল না, চিনে নিন সুপারস্টারদের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com